• Wednesday, 22 May 2024
চোখ কিভাবে ভালো রাখা যায়? চোখের  যত্নে যা যা করণীয়

চোখ কিভাবে ভালো রাখা যায়? চোখের যত্নে যা যা করণীয়

আজকাল মোবাইল বা কম্পিউটার প্রচুর চাপ ফেলছে চোখের উপর

লকডাউন কিংবা ‘হোম অফিস’ করে করে আর এই চাপ হয়ত আরও বেড়েছে ইদানীং । বর্তমান কোভিড১৯ চলাকালীন সময়ে স্কুল, কলেজ ও অধিকাংশ অফিস অনলাইন ভিত্তিক হয়ে যাওয়ায় স্ক্রিনের সামনে সময় বেশি দিতে হয় প্রায় প্রত্যেকেরই। এর ফলে চোখে নানান রকমের সমস্যা যেমন-শুষ্কতা, চুলকানি ভাব, লালচে হয়ে যাওয়া এমনকি চোখে পানি আসা বা মাথাব্যথার মতো সমস্যা দেখা দেয়।

ডা. অনুপ রাজাধ্যক্ষ (ভারতের ‘ইএনটিওডি ইন্টারন্যাশনাল’য়ের মেডিকেল কনসালটেন্ট ) বলেন, “ট্যাবলেট, টেলিভিশন বা ল্যাপটপের সামনে অধিকাংশ সময় ব্যয় করা শরীর ও মনের পাশাপাশি চোখের ওপরেও প্রভাব ফেলে।”  ‘দি ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস’কে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে তিনি আরও বলেন, “আগের চেয়ে আরও বেশি লোক তাদের ট্যাবলেট, টেলিভিশন এবং ল্যাপটপে আটকে রয়েছে। যদি চিকিৎসা না করা হয় তবে এই অভ্যাস আপনার মানসিক এবং শারীরিক সুস্থতার পাশাপাশি চোখের অবস্থার ওপর ক্ষতিকারক প্রভাব ফেলবে।" তাই চোখের যত্ন নেয়া খুবই প্রয়োজন ।

চোখের স্বাস্থ্য ভালো রাখার কয়েকটি উপায় দেয়া হলোঃ

  1. চোখের উপকারে শাক সবজিঃ চোখের সুস্থতায় পালংশাক বা কলি সালাদ ও রঙিন সবজি খাওয়া উপকারী। সবুজ শাক সবজি থেকে লুটেইন ও জিয়াক্সানথিন নামক উপাদান চোখের রোগ থেকে সুস্থ থাকতে সহায়তা করে বলে জানান, ডা. রাজাধ্যক্ষ।ভিটামিন-জাতীয় খাবার ও ট্যাবলেট খাওয়ার পরামর্শ দেন। ভারতের ‘ন্যাশনাল ইন্সটিটিউট অব মেডিসিন’ অনুযায়ী রঙিন খাবার- হলুদ ও কমলা রংয়ের সবজি (গাজর, মিষ্টি আলু) ভিটামিন এ সমৃদ্ধ যা চোখের স্বাস্থ্য ভালো রাখতে সহায়তা করে।
  2. চোখের উপকারে ফল-মুলঃ কলা, আঙুর ও আম উচ্চ ভিটামিন সি ও অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট সমৃদ্ধ যা চোখের রোগ থেকে সুস্থতা দান করে।ওমেগা-থ্রি সমৃদ্ধ খাবার চোখের আর্দ্রতা রক্ষা করে। ফলে শুষ্কতা দূর হয় এবং চোখ সুরক্ষিত থাকে।   
  3. চোখের বিশ্রামঃ চোখের বিশ্রামের জন্য কাজের ফাঁকে নিয়মিত বিরতি নেওয়া প্রয়োজন। স্ক্রিনের দিকে তাকিয়ে কাজ শুরু করার পর প্রতি ১৫ থেকে ২০ মিনিট পর পর চোখ বন্ধ করে বিশ্রাম নিন। দুই ঘণ্টা অন্তর অন্তর চোখের পেশিগুলোর চারপাশে মালিশ করুন বা পানি দিয়ে চোখ ধুয়ে আসুন। তবে, মালিশ করতে হাত দিয়ে খুব জোরে চোখ ঘষা উচিত নয়।
  4. চশমা ব্যবহারঃ নীল আলো থেকে সুরক্ষা দেয় এমন উন্নত চশমা ব্যবহার করুন । দীর্ঘক্ষণ স্ক্রিনে কাজ করলে এর থেকে বের হওয়া নীল আলো চোখের ক্ষতি করে। ‘কম্পিউটার গ্লাস’ স্ক্রিনের নীল আলো থেকে চোখকে সুরক্ষিত রাখে এবং চোখের ওপরে চাপ পড়া কমায়।  অধিকাংশ স্ক্রিন থেকে শক্তিশালী আলো নিঃসরণ হয় যা এই গ্লাস দিয়ে প্রতিহত করে যায়। নীল আলো প্রতিহত করার চশমাতে হলদে রংয়ের শেড ব্যবহার করা হয়।
  5. স্ক্রিন টাইম ব্রেকঃ নিজেকে ‘স্ক্রিন টাইম’ থেকে বিরত রাখতে কাজের ফাঁকে পরিবার-পরিজনের সাথে কিছুক্ষণ সময় কাটান । এতে চোখের বিশ্রাম হয়।

এভাবেই নিজের চোখকে রক্ষা করুন , ভবিষ্যতের জন্য । কারণ দৃষ্টিশক্তি না থাকলে আপনার আর কোন কাজ করাই সম্ভব নয় ।

Comment / Reply From

Newsletter

Subscribe to our mailing list to get the new updates!